in , ,

‘গৌরী ঈশানের রোমান্স‌ও হয় আবার গৌরীর মধ্যে মা কালীকে ফুটিয়ে তোলা হয়! এইসব দেখলে যে কেউ কোমায় চলে যাবে! এটা হিন্দু ধর্মের এবং দেবদেবীদের অবমাননা!’গৌরীর মা কালী হওয়ার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই তুমুল ট্রোলিং শুরু হলো!

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘গৌরী এলো’। এই ধারাবাহিকটি অনান্য ধারাবাহিকের থেকে একটু আলাদা। এই ধারাবাহিকে দেখানো হয় যে, ধারাবাহিকের নায়িকা গৌরী মা ঘোমটা কালীর অংশ, অন্যদিকে গৌরীর স্বামী ঈশান যে এই ধারাবাহিকে নায়ক, সে হলো দেবাদিদেব মহাদেবের অংশ। ধারাবাহিকে আরো বলা হয় যে, যেদিন শিব অংশের সঙ্গে শক্তি অংশের মিলন ঘটবে সেদিন দেবী ঘোমটা কালীর মুখের থেকে ঘোমটা খুলে যাবে।

এই ধারাবাহিকটি আধ্যাত্মিক পটভূমিকায় তৈরি হয়েছে তা বোঝাই যাচ্ছে। এর আগে স্টার জলসার দুর্গা ধারাবাহিকটি তেও দুর্গাকে দেবীর অংশ রূপে দেখানো হয়েছিল। কিন্তু তা বলে সেই ধারাবাহিকে দুর্গাকে দেবী রূপে প্রেজেন্ট করা হয়নি। তাকে একটা ইতিবাচক শক্তি রূপে ছায়া দুর্গা রূপে দেখানো হয়েছিল। একজন মেয়ে যার মধ্যে দেবী দুর্গার শক্তি নিহিত আছে, সে শুভবুদ্ধির প্রতীক তাই মাঝেমধ্যেই সে অশুভ শক্তিকে পরাজিত করে কিন্তু তাই তুলে বলে তার মধ্যে দেবী দুর্গার কোন রূপকে ফুটিয়ে তোলা হয়নি যেমনটা গৌরী এলো ধারাবাহিকে করা হচ্ছে। সে কারণে স্বাভাবিকভাবেই এই ধারাবাহিক নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল সমালোচনা হয়। ধারাবাহিকের সাম্প্রতিককালের প্রোমো দেখে দর্শকরা যেমন বিশাল চটেছেন।

গৌরী এলো ধারাবাহিকের সাম্প্রতিক কালের প্রোমো তে দেখানো হচ্ছে যে তাদের বাড়ির একটি মেয়ে মুক্তার সাথে কতকগুলি ছেলে অসভ্যতামো করে, এরপর মুক্তাকে সেই ছেলেগুলির হাত থেকে বাঁচাতে গৌরী, মা কালীর রূপ ধারণ করে এবং হাতে খাড়া নিয়ে ছুটে যায় এরপর গৌরীকে শান্ত করতে মহাদেবের মতো ঈশান গৌরীর পায়ের কাছে পড়ে যায় এবং গৌরী জিভ বার করে ফেলে এই দৃশ্যটি দেখার পর দর্শকদের একাংশ বলছেন এইভাবে হিন্দু ধর্মের অবমাননা করার কোন মানেই হয় না।

একজন নেটিজেন এর প্রতিবাদ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন,“ গাঁজা খেলোতে এতদিন যা গাঁজা ঢালছিল ঢালুক। কিন্তু ধীরে ধীরে মাত্রাছাড়া হয়ে যাচ্ছে । ছি! মা কালীকে নিয়ে তামাশা করছে, হাসির খোরাক বানিয়ে ফেলেছে সবকিছু ! আর নেকির এক্সপ্রেসন দেখে তো বোধহয় স্বয়ং মা কালি কোমায় চলে যাবে !
সকল হিন্দুদের উচিত বয়কট করা এই গাঁজা খেলো!”

আসলে, স্টার জলসার দুর্গা ধারাবাহিকের মত কোন কোন মানুষের মধ্যে শুভ শক্তি থাকে এবং কেউ কেউ ঠাকুরের কৃপাপ্রাপ্ত হয় এটা মানুষ মানতে পারলেও গৌরীর মত চরিত্র যেখানে স্বয়ং দেবী পৃথিবীতে অবতীর্ণ হয়েছেন এবং তিনি সংসারী মানুষের মতো সংসার করছেন এই বিষয়টা হিন্দু ধর্মের মানুষ মানতে পারেন না। কারণ দেবী সমস্ত কামনা-বাসনার উর্ধ্বে হন। যিনি দেবী তার মধ্যে সাংসারিক কোন বাসনা থাকবে না এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু গৌরী এলো ধারাবাহিকে এক দিকে ঈশান এবং গৌরীর মধ্যে স্বামী স্ত্রীর সম্পর্ক এবং রোমান্স দেখানো হচ্ছে অন্যদিকে তার মধ্যে মা কালীর রূপ ফুটিয়ে তোলা হচ্ছে যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় মানুষজন রীতিমতো প্রতিবাদ শুরু করেছেন।

একজন যেমন লিখেছেন,“ হে ধরণী, তুমি দ্বিধা বিভক্ত হয়ে যাও
এসব দেখার পরে! কোমায় চলে যাবে যে কেউ
বিনোদনের নামে হিন্দু ধর্মের অবমাননা!
আর এটা কি ধরনের এক্সপ্রেশন! মা কালীর রূপ এভাবে যে কেউ ফুটিয়ে তুলতে পারে না।”

Gouri elo

What do you think?

88 Points
Upvote Downvote

কালার্স বাংলায় বুড়ি দুর্গার সঙ্গে বুড়ো শিব দুজনকে ভালই মানিয়েছে’, সোশ্যাল মিডিয়া একাধিক কটাক্ষ শোনা গেল কালার্স বাংলার মহালয়ার অনুষ্ঠান নিয়ে

এবারে দিদি নাম্বার ওয়ান এর সঙ্গে পাল্লা দিতে আসছে ইন্দ্রানী হালদারের নতুন গেম শো, সামনে এলো তার প্রোমো ভিডিও