চাষের জমিতে কচুরিপানা,বিপুল ক্ষতির মুখে কৃষকরা

TodayPostDecember , 20211min900
61a64a4475704_IMG_20211130_21272474.jpg

[ad_1]

নিজস্ব প্রতিনিধি , নদীয়া – বৃষ্টি যেন কিছুতেই পিছু ছাড়তে চাইছে না বঙ্গে। একটার পর একটা প্রাকৃতিক দুর্যোগের কোপে এবং নিম্নচাপের ফলে রাজ্য গুলিতে বর্ষার জল জমার ফলে পানার চাপে প্রায় ১০০ বিঘা চাষের জমিতে প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে নদীয়া জেলার শান্তিপুরে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে , শান্তিপুরের ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের বর্ষার জল জমে আগাছা জন্মে যাওয়ায় চাষের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বর্ষার পরে যে চাষের ক্ষেত্রে আগে  ক্ষতি হয়েছে আবার বর্তমানেও জল জমে থাকা এবং কচুরিপানায়  ভর্তি থাকার ফলে রবি শস্য চাষেও ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন কৃষকরা। তাই এই মুহূর্তে জমিগুলোতে কচুরিপানা না পরিষ্কার করা পর্যন্ত  চাষ করতে পারছেন না কৃষকরা। এখন ওইসব জমিগুলোতে মসুর সহ বিভিন্ন ধরনের ডাল চাষ হওয়ার কথা। তাই পরে পাট চাষ যাতে ঠিকভাবে করতে পারেন তাই নিজেরাই নিজেদের জমি থেকে কচুরিপানা পরিষ্কারে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। তবে  কচুরিপানা পরিষ্কার করতে গিয়ে তাঁদের চোখে পড়ছে নানা ধরনের বিষধর সাপ।

বিনয় মন্ডল নামে একজন কৃষক বলেন, বর্তমানে বিষধর সাপের কারণে চাষের জমি পরিষ্কার করতে তাঁদের নানা রকম সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। তাছাড়া ফসলের অনেক ক্ষতি হয়েছে তাই তাঁরা পাট চাষের আসায় আয়ের পথ খুঁজছেন। তাঁরা এও জানান যে, সরকারের কাছ থেকে কোনো রকম সুযোগ সুবিধা পেলে তাঁরা উপকৃত হতেন।

অরুণ প্রামাণিক নামের একজন চাষী বলেন, এই সময়ে তাঁরা সস্য চাষ করতে পারলেন না তবে পরবর্তীতে গিয়ে তাঁরা আদেও পাট চাষ করতে পারবেন কিনা সে বিষয়ে আশঙ্খা রয়েছে। তাঁদের প্রায় ১০০ বিঘে জমিতে ১ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়ে গেছে। তাই সরকার যদি কিছু ক্ষতিপূরণের দিতেন তাহলে তাঁরা উপকৃত হতেন।

[ad_2]